শহীদ বেশে ফিরে এলেন আব্দুল্লাহ ওমর নাসিফ শাহাদাত

দেখতে দেখতে ৪টি বছর পেরিয়ে গেল। সময় চলে যায় কিন্তু স্মৃতিগুলো বারবার হৃদয়ের অন্তরালে হানা দেয়। কিছুতেই ভুলে থাকা যায় না শহীদের স্মৃতিগুলো। আমি দায়িত্বশীল থাকাকালীন অবস্থায় অনেক ভাইকে শহীদ হতে দেখেছি। চোখের সামনে বাতিলের আঘাতে অসংখ্য ভাইয়ের আহত, পঙ্গুত্ব ও শাহাদাতের অনেক স্মৃতিই চোখের সামনে ভেসে আসে বার বার। তেমনি আমার জীবনে যার শাহাদাতের স্মৃতিগুলো বারবার ভেসে আসে সে আমার প্রিয় ভাই “শহীদ আব্দুল্লাহ ওমর নাসিফ শাহাদাত”।

জান্নাতের বাগানে প্রস্ফুটিত একটি গোলাপ

সত্য-মিথ্যার দ্বন্দ্ব পৃথিবীর চিরন্তন ইতিহাস। মানুষ যখন অন্যায়, অত্যাচার আর অসত্যে নিমজ্জিত, শয়তান তার অনুসারীদের সাথে নিয়ে পৃথিবীতে শয়তানি শক্তির রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করতে ব্যস্ত; তখন আল্লাহ মানবজাতির কল্যাণে যুগে যুগে পাঠিয়েছেন অসংখ্য নবী-রাসূল ও তাদের সঙ্গী-সাথী হিসেবে প্রেরণ করেছেন দ্বীনের জন্য জীবন উৎসর্গকারী মর্দে মুজাহিদ। নবী-রাসূলদের পর তাদের উত্তরাধিকারীরা এ দায়িত্ব পালনে ব্রত হন। তারা শয়তানি শক্তি নির্মূলের জন্য সর্বশক্তি প্রয়োগ করেন, এমনকি জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে সাক্ষী হয়ে আছেন।

শহীদী মিছিলে শামিল হলেন প্রিয় ভাই ওমর ফারুক।

শহীদী মিছিলে শামিল হলেন প্রিয় ভাই ওমর ফারুক।