শহীদ কামরুল আহসান

১৫ সেপ্টেম্বর ১৯৯৩ - ২৩ নভেম্বর ২০১৫ | ২২৫

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির

শাহাদাতের ঘটনা

২৩.১১.১৫ তাং দুপুর ২টায় যশোর এম,এম কলেজেরে অর্থনীতি ৩য় বর্ষের ছাত্র ১.হাবিবুল্লাহ হোসাইন ২.কামরুল আহসান ও ৩.আব্দুল্লাহ আল মামুনকে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রওশন ইকবাল শাহীনের নেতৃত্বে জিসান, রনি, জুয়েলসহ ১০-১৫ জন ছাত্রলীগ সন্ত্রাসী মেসে হামলা চালিয়ে ধরে নিয়ে যায়। পরে কলেজের আসাদ হলে আটকে রেখে তাদের উপর বর্বর নির্যাতন চালায় সন্ত্রাসীরা ।

কলেজের পূর্ব পাশে ‘নির্ঝর’ নামে একটি মেসে থাকতেন তারা। পরে পুলিশ এসে আহতদেও উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যায় ।কামরুল আহসানের অবস্থা অবনতি হওয়াতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয় । ২৪.১১.১৬ কামরুল আহসান ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাহদাৎ বরণ করেন । কামরুল আহসান বাঘারপাড়া উপজেলার ছোটখুদরা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ও আনোয়ারা বেগমের ছেলে। কামরুল আহসান সংগঠনের কর্মী ও যশোর এম,এম কলেজেরে অর্থনীতি ৩য় বর্ষের ছাত্র।

এক নজরে

পুরোনাম

শহীদ কামরুল আহসান

পিতা

মোহাম্মাদ আলী

মাতা

অানোয়ারা বেগম

জন্ম তারিখ

সেপ্টেম্বর ১৫, ১৯৯৩

ভাই বোন

২ ভাই ও ২ বোন

স্থায়ী ঠিকানা

গ্রামঃ ছোটখুদরা, পোস্টঃ বন্দবিলা. থানাঃ বাঘারপাড়া, জেলাঃ যশোর

সাংগঠনিক মান

সাথী

সর্বশেষ পড়ালেখা

অর্থনীতি, ৩য় বর্ষ। যশোর এম এম কলেজ।

শাহাদাতের স্থান

যশোর ছাত্রাবাস থেকে ছাত্রলীগের হাতে অাহত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাহাদাৎ বরণ করেন ।