শহীদ সাইফুল ইসলাম মামুন

০২ ফেব্রুয়ারি ১৯৯০ - ১৯ জুলাই ২০১৬ | ২৩৪

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির

শাহাদাতের ঘটনা

১৯.৭.১৬, সাইফুল ইসলাম মামুনকে গত ৩ই জুলাই ঝিনাইদহের নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় ঝিনাইদহ শহর শাখার সাবেক সাথী, সাবেক থানা অর্থ সম্পাদক সাইফুল ইসলামকে। কিন্তু বরাবরের মতই তাকে গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকার করে পুলিশ। সাইফুল ইসলামসহ গ্রেপ্তার হওয়া আরও ৪ জনের সন্ধানের দাবীতে সংগঠন ও পরিবারের পক্ষ থেকে বিবৃতি প্রদান করা হয়। এদের মধ্য থেকে দুই জনকে স্বীকারোক্তির নাটক সাজিয়ে গত ১৭ জুলাই আদালতে হাজির করে পুলিশ। পুলিশ তাদের দীর্ঘদিন আটক রেখে সংখ্যালঘু হত্যার স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দী আদায়ের জন্য নির্মম নির্যাতন চালায়। শত নির্যাতনের পরেও মিথ্যা স্বীকারোক্তি দিতে অস্বীকার করলে পরিকল্পিত ভাবে সাইফুল ইসলামকে বন্দুকযুদ্ধের নাটক সাজিয়ে ১৯ তাং রাতের আঁধারে হত্যা করেছে পুলিশ। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় , কুষ্টিয়া থেকে আরবী সাহিত্যে অর্নাস মাস্টাস শেষ ও সংগঠনের সাবেক সাথী । ঝিনাইদহ জেলার ফুলহরি গ্রামের লুৎফুর রহমান ছেলে ।

এক নজরে

পুরোনাম

শহীদ সাইফুল ইসলাম মামুন

পিতা

লুতফুর রহমান

মাতা

রোকেয়া বেগম

জন্ম তারিখ

ফেব্রুয়ারি ২, ১৯৯০

ভাই বোন

৭ ভাই বোনের মধ্যে ২ য়।

স্থায়ী ঠিকানা

গ্রামঃ মুচড়া পাড়া, পুটিমারি, পোস্টঃ ফুলহরি, শৈলকুপা, ঝিনাইদহ

সাংগঠনিক মান

সাথী

সর্বশেষ পড়ালেখা

আরবী সাহিত্যে মাস্টার্স,

শাহাদাতের স্থান

ঝিনাদহের তেতুলবাড়িয়া নামক স্থানে কথিত বন্দুক যুদ্ধে হত্যা করা হয়।