দ্বীন প্রতিষ্ঠায় নিজেদেরকে যোগ্য করে গড়ে তোলতে হবে

শিবির সভাপতি বলেন, আল্লার বিধান জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সবার জন্য কল্যাণকর। কিন্তু জমিনে দ্বীন কায়েম ছাড়া সত্যিকারের ইহকালের শান্তি ও পরকালের মুক্তি আসে না তা চিরন্তন সত্য। যার উত্তম নজির প্রিয় বাংলাদেশ। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের যত উপদান দরকার তা সবই আছে এদেশে। কিন্তু স্বাধীনতার পর বহু বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো পর্যন্ত সমৃদ্ধি অর্জিত হয়নি। কারণ রাষ্ট্র বরাবরই পরিচালিত হয়েছে মানবরচিত বিধানে। আর এই মানব মতবাদে রাষ্ট্র সমাজ পরিচালনার কুফলের শিকার হচ্ছে এদেশের জনগণ। রাজনৈতিক প্রতিহিংসা, অর্থনৈতিক বৈষম্য, সামাজিক অবক্ষয়, অপসংস্কৃতির প্রভাব ও নৈতিকতাহীনতায় দেশ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। জনগণের আগামী দিনের প্রত্যাশার জায়গাটি হতাশা ও শঙ্কা দখল করে নিয়েছে। এ ভয়াবহ অবস্থার পরিবর্তন হতে পারে শুধু মাত্র রাষ্ট্রে দ্বীন কায়েমের মাধ্যমে। আর দ্বীন কায়েমে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে ছাত্রশিবিরকেই।

প্রশ্নফাঁস শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, জাতি ধ্বংসের আত্মঘাতি খেলায় মেতে উঠেছে সরকার। নিখুত ভাবে আগামী প্রজন্মকে ধ্বংসের মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে চলেছে তারা। দেশকে পরনির্ভর করতে শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংসে করে দিচ্ছে। প্রশ্নফাঁস শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।

শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ছাত্রসমাজকে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে হবে

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, অবৈধ সরকারের অপশাসন ও ধ্বংসাত্বক কর্মে জাতি আজ গভীর ভাবে শঙ্কিত। দেশের মানুষ গভীর অনিশ্চয়তায় দিন যাপন করছে। বিশৃঙ্খল অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে হলে সন্ত্রাস এবং নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে ছাত্রসমাজকে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে হবে।

ধৈর্য ও সাহসিকতার সাথে প্রতিটি ছাত্রের কাছে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছাতে হবে

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, ইসলামের অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দেওয়ার জন্য বাতিল শক্তি জুলুম, নির্যাতন ও অপপ্রচারের মাধ্যমে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। ছাত্রশিবিরের প্রতিটি নেতাকর্মীকে ঈমানী দৃঢ়তা ও চারিত্রিক মাধুর্যতা দিয়ে অপশক্তির সকল বাঁধা মোকাবেলা করতে হবে। আগামী দিনে ধৈর্য ও সাহসিকতার সাথে প্রতিটি ছাত্রের কাছে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছাতে হবে।

তীব্র শীতে বিপর্যস্তদের সহায়তায় সরকার ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে

শিবির সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, দেশের ৫০ বৎসরের ইতিহাসের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা বিরাজ করছে। তীব্র শীত ও শৈত্যপ্রবাহে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়ছে। বিপাকে পড়েছেন কর্মজীবী মানুষ। শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ। ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে শীতের প্রকোপে অনেক মানুষের মৃত্যু ঘটেছে। শীত এখন বিপর্যয়ে রুপ নিয়েছে। বিশেষ করে অসহায় দরিদ্র মানুষের জন্য শীত সিমাহীন দূর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কষ্টে দিন যাপন করছে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা গরীব ও এতিম শিশুরা। এসব মানুষগুলোকে সরকার ও সমাজের বিত্তবানদের সহায়তার দিকে চেয়ে আছে। এ পরিস্থিতিতে শীতার্ত মানুষদেরকে অগ্রাহ্য করার কোন সুযোগ নেই। এই বিপর্যয় রোধে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না নিলে শীতের দুর্ভোগে মৃত্যুর হারও বাড়বে।

দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের চক্রান্ত রুখে দিতে হবে

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, দেশের চলমান সংকট ও অশান্তির মূল কারণ নীতি ও আদর্শহীন নেতৃত্ব। যারা দেশের সমস্যা সমাধান ও জাতির প্রত্যাশা পূরণে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। এরাই এখন শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিতে ষড়যন্ত্র চূড়ান্ত করছে। কিন্তু এ ষড়যন্ত্র সফল হতে দেয়া হবে না। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের চক্রান্ত রুখে দিতে হবে।

মাসিক মানবাধিকার‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬‬ পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন, ডিসেম্বর - ২০১৭

ছাত্রশি্বির কেন্দ্রীয় মানবাধিকার বিভাগ মনে করে, মানুষের মৌলিক অধিকার, নিরাপত্তার অধিকার, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও রাজনৈতিক অধিকার ভূলুন্ঠিত হলে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে না। জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিতকরণ, সংবিধান স্বীকৃত হলেও সরকার জনগণের অধিকার সমুন্নত রাখতে ব্যর্থ হচ্ছে। রাষ্ট্র পরিচালনার সকল ক্ষেত্রে জনগণ নিজেদেরকে নাগরিক ভাবতে ও অংশগ্রহণ করতে না পারলে সেখানে প্রকৃত গণতন্ত্র গড়ে উঠে না। এজন্য সাম্য, ন্যায় ও ইনসাফের ভিত্তিতে সমাজ ও রাষ্ট্রীয় কাঠামো প্রণয়ন অতীব গুরুত্বপূর্ন একটি বিষয়। রাষ্ট্রের দায়িত্বশীল ব্যক্তি থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা ও সুশাসন নিশ্চিত করতে না পারলে কোন দিনই মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়। রাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতায় বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড, প্রশাসনের হেফাজতে নির্যাতন, সাংবাদিকদের উপর আক্রমণ, সীমান্তে বিএসএফ কর্তৃক নিরীহ বাংলাদেশী হত্যা ও নির্যাতন, নারীর প্রতি সহিংসতা ও ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপাসনালয়ে হামলা দিন দিন বেড়েই চলছে। বিশেষ করে দেশের সাম্প্রতিক সময়ে আইন শৃঙ্খলা-বাহিনী কর্তৃক কথিত জঙ্গি দমনের অভিযানে আতঙ্কে ১৬ কোটি মানুষের নিরাপত্তা আজ হুমকির মুখে পড়েছে।

মানবিক কারণে শীতার্তদের পাশে দাঁড়ান -শিবির সভাপতি

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, তীব্র শীতের প্রকোপে হতদরিদ্র মানুষের কষ্টের সীমা নেই। আর্থিক দুরবস্থার কারণে অনেকেই শীতের গরম কাপড় কিনতে পারছে না। প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্র না থাকায় তারা চরম মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাই মানবিক কারণে শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।

সরকারের দু:শাসনে ব্যর্থ রাষ্ট্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, দখলদার সরকারের সার্বিক অপশাসন ও ধ্বংসাত্বক কর্মে জাতি আজ গভীর ভাবে শঙ্কিত। জনগণ গভীর অনিশ্চয়তায় দিন যাপন করছে। সরকারের দু:শাসনে ব্যর্থ রাষ্ট্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।

সত্যের পক্ষে নিরন্তর পথ চলা অব্যাহত থাকবে -শিবির সেক্রেটারি জেনারেল

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, ইসলামী মূল্যবোধের ভিত্তিতে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে ছাত্রশিবির। কিন্তু এ পথ কন্টকমুক্ত নয়। ইসলামের কথা বললেই জালিমের জুলুম ও নির্যাতনের স্বীকার হতে হবে। এটাই রাসূল সা. এর সুন্নাহ। তাই সকল বাধা মোকাবিলা করেই সত্যের পথে নিরন্তর পথ চলা অব্যাহত থাকতে হবে।