প্রতিকুল পরিবেশেও ইসলামের দাওয়াত প্রতিটি ছাত্রের কাছে পৌঁছাতে হবে

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, যে কোন ত্যাগ স্বীকার করে হলেও আল্লাহর এই জমিনে দ্বীন প্রতিষ্ঠায় ইসলামী আন্দোলনের কর্মীরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এই দ্বীন কায়েমের পূর্বশর্ত হচ্ছে দাওয়াতি কাজের মাধ্যমে মানুষকে আল্লাহর পথে আহবান করা। তাই প্রতিকুল পরিবেশেও ইসলামের দাওয়াত প্রতিটি ছাত্রের কাছে পৌঁছাতে হবে।

জুলুম-নির্যাতন করে ইসলামী আন্দোলনকে স্তব্ধ করা যাবে না

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, ইসলামী আন্দোলনের কর্মীরা নির্ভিক। দ্বীনের পথে চলার পথে যে কোন ত্যাগ স্বীকার করতে তারা সর্বদা প্রস্তুত। সুতরাং জুলুম-নির্যাতন করে, মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ইসলামী আন্দোলন স্তব্ধ করা যাবে না।

১৭ রমাদান, ঐতিহাসিক বদর দিবস।

ইতিহাসে যতগুলো যুদ্ধ মুসলমানদের সাথে বিভিন্ন সম্প্রদায় বা জাতিগোষ্ঠীর কিংবা বিধর্মীদের সাথে সংঘটিত হয়েছে, তার মধ্যে বদরের যুদ্ধ ছিল মুসলমানদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, বদরের যুদ্ধের তাৎপর্য ঐতিহাসিক। এ যুদ্ধটি ছিল ইতিহাস নির্ধারণকারী একটি লড়াই। বদরের যুদ্ধে যদি মুসলমানেরা পরাজিত হতেন, তাহলে দ্বীন ইসলামে মহান আল্লাহকে ডাকার মতো কোনো লোক এই পৃথিবীতে থাকত কি না তা কেবল সেই মহান সৃষ্টিকর্তা ছাড়া আর কারো জানা ছিল না

আল্লামা সাঈদীকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করলে গোটা দেশ গর্জে উঠবে - শিবির সভাপতি

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, দেশবাসী তাদের প্রাণপ্রিয় ব্যক্তিত্ব আল্লামা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর মুক্তির প্রহর গুনছে। আল্লামা সাঈদীকে নিয়ে নতুন করে ষড়যন্ত্র করলে গোটা দেশ গর্জে উঠবে।

কুরআনের দাওয়াত ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন বলেই আল্লামা সাঈদীকে হত্যা করতে চাইছে সরকার

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, আল্লামা সাঈদীকে অন্যায় ভাবে কারাগারে আটক রেখে দেশের মানুষকে কুরআনের দাওয়াত থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। কুরআনের দাওয়াত ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন বলেই আল্লামা সাঈদীকে হত্যা করতে চাইছে সরকার।

দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই

তিনি আজ রাজধানীর এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবিরের সদস্য প্রার্থী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। অফিস সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের পরিচালনায় সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক হাসানুল বান্না, প্রচার সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সালাউদ্দিন আয়্যুবী সহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী।

ইসলামী মুল্যবোধই পারে তরুণ প্রজন্মকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে

কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, ছাত্রশিবির ঘুণেধরা এই সমাজ ব্যবস্থার পরিবর্তে ইসলামী মুল্যবোধের ভিত্তিতে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য পরবর্তী প্রজন্মকে ইসলামী মুল্যবোধের আলোকে গড়ে তোলা। কারণ শুধুমাত্র ইসলামী মুল্যবোধই পারে দেশ গড়ার কারিগর তরুণ প্রজন্মকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে।

সময়ের অনিবার্য প্রয়োজনেই ছাত্রশিবিরের প্রতিষ্ঠা

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, কোন প্রেক্ষাপট ছাড়া যেমন কোন ঐতিহাসিক ঘটনা জন্ম নেয় না তেমনি কোন প্রয়োজন ছাড়া সংগঠনেরও জন্ম হয় না। ছাত্রশিবিরের প্রতিষ্ঠা ছিল তৎকালীন সময়ের এক অনিবার্য দাবি। আর সময়ের অনিবার্য প্রয়োজনেই ছাত্রশিবির জন্মলাভ করেছে।

‘গঠনমূলক পথ চলাই ছাত্রশিবিরের ভিত্তিকে মজবুত করেছে’

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, সমৃদ্ধ জাতি গঠনে আদর্শিক নেতৃত্ব তৈরীর লক্ষ্য নিয়ে ছাত্রশিবির যাত্রা শুরু করেছিল। আমাদের পথচলা আজ বহুদূর পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। এ অগ্রযাত্রাকে দমিয়ে দিতে নানা মহল থেকে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। কিন্তু তাদের কোন চক্রান্তই সফল হয়নি। গঠনমূলক পথ চলাই ছাত্রশিবিরের ভিত্তিকে মজবুত করেছে।

দেশকে নেতৃত্ব দেয়ার উপযোগী হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেন, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও রক্ষার জন্য প্রয়োজন আদর্শিক নেতৃত্ব তৈরী ও প্রতিষ্ঠা করা। তবেই দেশকে সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব। তাই দেশকে নেতৃত্ব দেয়ার উপযোগি হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে।